19.3.11

চারকি

গলায় পালক না থাকায় প্রথম দর্শনে মনে হবে, ওরা ‘গলা ছিলা মুরগি’। ভালো করে তাকালে দ্বিধায় পড়তে হবে। কারণ, পাখিগুলো কেবল আকারে বড় নয়, গায়ের পালকগুলোও সাধারণ মুরগির পালকের চেয়ে বড় আর ঘন। গলার পালকহীন অংশটুকুও যেন মুরগির সঙ্গে মেলানো যাচ্ছে না। বরং গলাটা যেন অনেকটা ‘টারকি’ বলে পরিচিত গৃহপালিত পাখির মতো।
আসলে এই পাখিটি সরাসরি মুরগি বা টারকি নয়। এটি হচ্ছে মুরগি ও টারকির সঙ্কর। মুরগির ইংরেজি শব্দ ‘চিকেন’ ও ‘টারকি’ থেকে বিজ্ঞানীরা পাখিটির নাম দিয়েছেন ‘চারকি’(Churkey)। মুরগি ও টারকির উন্নতমানের এই সঙ্করটিকে অনেকে ‘টারকেন’ (Turken)বলে থাকে। কেতাবি ভাষায় বলা হয়, ‘ট্রানসিলভানিয়ান নেকেড নেক চিকেন’(Transylvanian Naked Neck chicken)। চারকি এখনো শীতপ্রধান দেশের গৃহপালিত পাখি। তবে ভবিষ্যতে ওরা গরমের দেশের বাসিন্দাও হতে পারে।
চারকির বিশেষত্ব হচ্ছে, মুরগি বা টারকির চেয়ে এটির গরম সয়ে নেওয়ার ক্ষমতা বেশি। একটি ব্রিটিশ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা চারকির ডিএনএ পরীক্ষা করে দেখেছেন, শরীর ঠান্ডা রাখার স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য অর্জন করেছে পাখিটি। এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোজলিন ইনস্টিটিউটের ড. ডেনিস এই গবেষণার নেতৃত্ব দেন। তিনি বলেন, এই গুণটির কারণে চারকি নিজেকে গ্রীষ্মপ্রধান দেশের পরিবেশের সঙ্গে সুন্দর মানিয়ে নিতে পারবে।



# প্রথম আলো

1 comments:

THOMAS said...

nice foto!
thomasbirds.blogspot.com

March 26, 2011 at 2:05 PM

Post a Comment